সবাই ভালোবাসা চায় তবে ভালোবাসার মানুষকে কি সকলে পায়। কেও পায় আবার কেও পায় না এরপর ও আমরা সকলে ভালোবাসার পুজারি। ভালোবাসা ভালো কি মন্দ সে তর্কে না যায় তবে একসঙ্গে একাধিক ভালোবাসা যে অনেক সময় বিপদ ডেকে আনে সেটা তো সত্যিই। কিন্তু এবার একাধিক ভালোবাসার জয় হয়েছে।

অনেকেই আছেন, যাঁরা একসঙ্গে দুজনকে ভালোবাসেন। কিন্তু বিয়ে করেন শুধু একজনকে। তবে এই প্রেমিক সবার থেকে আলাদা। তিনি ভালোবাসেন দুজনকে। কাউকেই দুঃখ দিতে মন সায় দিচ্ছিল না। কী আর করা? তাই দুই বান্ধবীর সঙ্গেই গাঁটছড়া বাঁধলেন ওই প্রেমিক।

দুই বান্ধবীর এক স্বামী!

আজব এই ঘটনা ঘটেছে এশিয়ার দেশ ইন্দোনেশিয়ায়। যে এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে, সেখানে এক ব্যক্তির একসঙ্গে চারজন স্ত্রী রাখার বৈধতা আছে। খবর নিউজ১৮

গত ১৭ আগস্ট ধর্মীয় রীতি মেনে বিয়ে সম্পন্ন হয় তাদের। অদ্ভুত হলেও এক বিয়ের আসরেই দুই নারীর হাত তুলে দেওয়া হয় ওই প্রেমিক যুবকের হাতে। খবরে বলা হয়, সামাজিক প্রথা অনুযায়ী দুই স্ত্রীকে ভালো অঙ্কের পণও তিনি দিয়েছেন বিয়ে করার জন্য।

বহুগামিতা ইন্দোনেশিয়ায় নতুন নয়। দেশের আইন মেনেই একসঙ্গে চারজন স্ত্রী রাখতে পারেন একজন পুরুষ। তবে সব স্ত্রীকে পর্যাপ্ত মর্যাদা দিতে হয় ওই আইনে।

খবরে আরো বলা হয়, অনেক দিন ধরেই দুই নারীর সঙ্গে প্রেম ছিল ওই যুবকের। কিন্তু কোনো বান্ধবীকেই দুঃখ দিতে চান না বলেই এমন কাজ করেছেন তিনি। প্রেমিকের এই সিদ্ধান্তে অবশ্য সহমত পোষণ করেছেন দুই বান্ধবীও।