ঢাকার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের প্রধান ভবনে অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে।

১২ তলা বিশিষ্ট এই ভবনের বেইজমেন্টে রোববার রাত ১১টার দিকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে।

ওই বেইজমেন্টে ইভিএম থাকার কথা জানিয়েছেন শেরে বাংলানগর থানার ওসি জানে আলম মুন্সী।

ইসির জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেছেন, অগ্নিকাণ্ডে কিছু ইভিএমের ক্ষতি হতে পারে।

আগুন লাগার খবর পেয়ে রাত সোয়া ১১টার দিকে ফায়ার বিগ্রেড নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু করে বলে বাহিনীর নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার ফরহাদ উল আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “রাত ১১টা ৬ মিনিটে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত। এটা বড় ধরনের আগুন নয়, মোটামুটি ছোট্ট অগ্নিকাণ্ড। ৬টি ইউনিট কাজ করছে।”

এক ঘণ্টার মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানিয়েছেন জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার সাইদুল।

রাত ১২টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার কথা বলা হলেও ধোঁয়া উড়ছিল।

সাইদুল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ইভিএমের কিছু ক্ষতি হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির প্রকৃত চিত্র ও অগ্নিকাণ্ডের কারণ বিষয়ে পরবর্তীতে খোঁজ নেব।”

তিনি বলেন, “প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, শর্ট সার্কিট থেকে এর সূত্রপাত। বড় ধরনের শঙ্কা করছি না আমরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।”

নির্বাচন ভবনের বেইজমেন্টে ‘ইভিএম সংরক্ষণে’র বিশেষ ব্যবস্থার গুদাম রয়েছে। ভবনের ১১ তলার জাতীয় পরিচয়পত্রের ডেটাবেইজ।

ব্রিগেডিয়ার সাইদুল বলেন, “ভোটার ডেটাবেইজের কোনো ক্ষতি হবে না।”

অগ্নিকাণ্ডের ২০-২৫ মিনিটের মধ্যে এনআইডি জিডি ও ইসি সচিবালয়ের কর্মকর্তারা নির্বাচন ভবনে উপস্থিত হন। ফায়ার সার্ভিসের পাশাপাশি সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রশিক্ষিত লোকবল কাজে নামে।